ছেলে-মেয়েকে কী শিক্ষা দেবেন, কলকাতার ম্যাচ দেখতে গিয়ে বিতর্কে শাহরুখ

চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে জয় পেয়েছিল কেকেআর। আর এদিন সপরিবারে গ্যাললারিতে হাজির ছিলেন শাহরুখ খান। কিং খান, গৌরি, আরিয়ানের পাশাপাশি বাড়তি পাওনা হিসেবে এদিন কেকেআরকে চিয়ার করার জন্য উপস্থিত ছিলেন শাহরুখ কন্যা সুহানাও।

প্রিয় দলের জয়ে খুশি কিং খানের গোটা পরিবার। কিন্তু রাজস্থান রয়্যালস ম্যাচের মতোই এই ম্যাচে বিতর্ক পিছু ছাড়ল না শাহরুখ খানের। রাজস্থান ম্যাচে মাস্ক না পড়ায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হয়েছিলেন আরিয়ান। এই ম্যাচে সেই বিতর্কে নাম লেখালেন শাহরুখ ও সুহানাও।

রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে ম্যাচে গ্যালারিতে উপস্থিত ছিলেন কেকেআর মালিক শাহরুখ খান, গৌরি ও আরিয়ান। সেই ম্যাচেও কিং খানকে জয় উপহার দিয়েছিল তার দল।

পুরো ম্যাচে দলকে উজ্জীবিত করেছিল এসআরকে। দীর্ঘদিন পর শাহরুখকে দেখতে পেয়ে খুশি হয়েছিল তার ভক্তরাও। পাশাপাশি স্ত্রী গৌরি ও নিজে পুরো ম্যাচ মাস্ক পড়ে বসেছিলেন।

কিন্তু সেই ম্যাচে মা-বাবা মাস্ক পড়লেও, পুরো ম্যাচ মাস্ক ছাড়াই দেখেছিলেন শাহরুখের ছেলে আরিয়ান। যা নিয়ে বিতর্কও কম হয়নি। সোশ্যালল মিডিয়ায় ট্রোলড হতে হয়েছিল আরিয়ানকে।

সিএসকের বিরুদ্ধে কেকেআরের ম্যাচেও গ্যালারিতে পরিবার সহ উপস্থিত ছিলেন কিং খান। এদিন বাড়তি পাওয়না হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহরুখ কন্যা সুহানাও। এদিনও কেকেআর জয় উপহার দিল দলের মালিককে।

কিন্তু রাজস্থানের বিরুদ্ধে আরিয়ান যেই ভুল করেছিল, সেই একই ভুল করলেন এবার শাহরুখ খানও। ছেলের ভুল থেকে শিক্ষা না নিয়ে, একই কাণ্ড ঘটালেন এসআরকে। ম্যাচের বেশির ভাগ সময় মাস্ক ছাড়াই ছিলেন তিনি।শুধু শাহরুখ খান নয়, তার কন্যা সুহানাকেও স্টেডিয়ামে দেখা গিয়েছে মাস্ক ছাড়া খেলা দেখতে। বাবা-মেয়ে পাশাপাোশি বসেওছিলেন মাস্ক ছাড়া। করোনা আবহে যা নিয়ে তৈরি হয়েথে ফের বিতর্ক।

যদিও স্টেডিয়ামে মাস্ক পড়া নিয়ে ডিজিটাল বোর্ডের বার্তা দেখার পর মুখে মাস্ক চাপিয়েছিলেন শাহরুখ খান ও তার কন্যা সুহানা। কিন্তু বার্তা দেখার পর মাস্ক পড়া নিয়েও উঠছে প্রশ্ন।

রাজস্থান ম্যাচে মাস্ক না পড়ায় ট্রোলড হয়েছিলেন আরিয়ান। তাই চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে খেলা দেখতে এসে প্রায় সর্বক্ষণ মাস্ক পড়েছিললেন শাহরুখ পুত্র।

ফলে কিং খান ও তার পরিবার মাঠে গেলে তাদের দলের কাছে তা লাকি হচ্ছে ঠিকই। জয় পাচ্ছে কেকেআর। কিন্তু বিতর্ক পিছু ছাড়ছে দলের মালিক ও তার পরিবারের।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*