অপূর্বর জন্য দোয়া চেয়ে বিপাকে মেহজাবীন

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন টিভি পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার ফুসফুস ৩৫ শতাংশ আক্রান্ত। তাকে প্লাজমা থেরাপি দেয়া লাগবে।

অপূর্বর দ্রুত সুস্থতা কামনা করছেন তার সহকর্মীরা। তার আরোগ্য কামনায় অন্যদের মতে দোয়া চেয়ে ৪ নভেম্বর ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী।

মেহজাবীন লিখেছিলেন– ‘আমাদের সকলের প্রিয় অপূর্ব ভাইয়া যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসতে পারেন। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’

স্ট্যাটাসের পর পরই ইতিবাচক ও নেতিবাচক মন্তব্যে ভেসে যায় সেই কমেন্ট বক্স। এমন পোস্টের নিচে এতসব নেতিবাচক মন্তব্য দেখে বিব্রত হয়েছেন মেহজাবীন।

পরে এ বিষয়ে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন অপূর্বর সঙ্গে জুটি বেঁধে বেশ কিছু জনপ্রিয় নাটক উপহার দেয়া এ অভিনেত্রী।

মেহজাবীন বলেছেন, ‘নেতিবাচক মন্তব্য করার মতো কিছু আমি লিখিনি। তারা কী বুঝে মন্তব্য করছেন, সেটি জানি না। এটা মন্তব্যকারীদের সমস্যা। কারণ এখানে খারাপ মন্তব্য করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। আমি ভাবিনি কেউ এমন মন্তব্য করতে পারেন। তার পরও যারা নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন, তাদের কথায় মন খারাপ করিনি। আমার সহকর্মী অসুস্থ, তার সুস্থ হয়ে ওঠাই আমার কাছে মুখ্য।’

প্রসঙ্গত বেশ কিছু দিন ধরেই অসুস্থ বোধ করছিলেন অপূর্ব। শুটিংয়ে অনুপস্থিত ছিলেন। গেল সপ্তাহে সাগর জাহানের একটি নাটকের শুটিংয়ে অপূর্ব শেষ অংশ নেন। নাট্যনির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ান জানিয়েছেন, গত কয়েক দিন ধরে কাঁপুনি দিয়ে জ্বর অনুভব করছিলেন অপূর্ব। এর পর করোনার আরও কিছু উপসর্গ দেখা দিলে তিনি পরীক্ষা করান। গত ২ নভেম্বর পজিটিভ ফল আসে। এর পর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে গত ৩ নভেম্বরে রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি হন। সেদিন থেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এ অভিনয়শিল্পী। এর পর থেকে কিছুই খেতে পারছেন না তিনি। শুধু বমি করছেন।

উল্লেখ্য, অপূর্বর সঙ্গে বহু নাটকে জুটি বেঁধে কাজ করেছেন মেহজাবীন। ‘বড় ছেলে’সহ এই দুজনের বহু নাটক দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*