দুই সন্তানের সামনেই অভিনেত্রী তিশাকে ‘আপত্তিকর প্রশ্ন’

চলতি প্রজন্মের অভিনেত্রী তাসনুভা তিশা। একক নাটক নিয়েই বর্তমানে তিনি ব্যস্ত সময় পার করছেন। সর্বশেষ ‘ছোট্ট একটা শব্দ’ শিরোনামের একটি নাটকে অভিনয় করেছেন।

নাটকটি পরিচালনা করেছেন শফিক মুক্তা। এতে ইরফান সাজ্জাদের বিপরীতে দেখা যাবে তাকে। তাসনুভা বলেন, গল্প নির্ভর নাটক এটি। বেশ ভালো লেগেছে। ইরফানের সাথে আগেই কাজের অভিজ্ঞতা ছিল।

করোনাকালে কাজ করার অভিজ্ঞতা নিয়ে জানতে চাইলে তাসনুভা বলেন, গত ঈদের কাজ যখন করেছি তখন ভয় কাজ করেছে। এখন ভয় অনেকাংশে কমেছে। আতঙ্কিত নই আগের মতো। কারণ কাজ তো করতেই হবে। কতদিন বসে থাকা যাবে! তাই সচেতন থেকে কাজের চেষ্টা করছি।

সম্প্রতি ভক্তদের সঙ্গে আড্ডা দিতে ফেসবুক লাইভে এসেছিলেন এই অভিনেত্রী। সঙ্গে ছিল তার দুই সন্তান। সেই আড্ডায় একের পর এক প্রশ্ন করতে থাকেন ভক্তরা।

সেসবের জবাব দিতে গিয়ে বহুবার থমকে যেতে হয়েছে তিশাকে। মন্তব্যের ঘরে এমন সব প্রশ্ন আসছিল, যেগুলো ঠিক প্রশ্ন নয়, বুলিং। সেই লাইভে সন্তানদের সামনে রীতিমতো বিব্রত হতে হয়েছে এই অভিনেত্রীকে।

লাইভে এসেই তিশা তাঁর দুই সন্তানের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন বন্ধু ও অনুসারীদের। বড় মেয়ে ইশরাত রাইয়ান এশি এ বছর পা রেখেছে ১১ বছরে, ছেলে ফারাজ মুতাজ্জিমের বয়স ৭ বছর।

তিশা প্রথমেই বলেন, ‘আমরা ছবি দেখতে দেখতে একটু বোর ছিলাম। ভাবছিলাম কীভাবে সময় কাটাব। পরে মনে হলো, যাঁরা আমার কাজ পছন্দ করেন, তাঁদের সঙ্গে একটু সময় কাটাই। সে জন্যই লাইভে এসেছি।’

মেকআপহীন সাদামাটাভাবে লাইভে আসায় তিশাকে দেখাচ্ছিল সাধারণ একজন নারীর মতোই। সেখানে একজন মন্তব্য করেন, ‘আপু, আপনাকে দেখতে ১৪ আগস্ট সিরিজের ঐশির মতো লাগছে।’ উত্তরে তিনি বলেন, ‘বাসায় সেজেগুজে থাকি না।’ এরপর একের পর এক প্রশ্ন আসতে থাকে। ছেলেকে পাশে বসিয়েই সেসবের উত্তর দেন তিশা।

হঠাৎ এই অভিনেত্রীকে থেমে যেতে হয়। তাঁর মুখ থেকে বেরিয়ে আসে, “মানুষ এমন প্রশ্ন কীভাবে করে!” কখনো বিরক্ত হয়ে মুখ ঘুরিয়ে নেন, আবার কখনো বলেন, ‘বাচ্চাদের সামনে এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়া যাবে না।’

প্রশ্ন, প্রতিক্রিয়া, আহ্বানের মধ্যে ছিল, ‘আপনি আমার এক্স গার্লফ্রেন্ডের মতো, আসেন একদিন দেখা করি’, ‘চলো, আমরা গোপনে দেখা করি’, ‘মিডিয়ার মানুষদের আবার বিয়ে করা লাগে’। কিছু মানুষ তাঁর সন্তানদের নিয়েও কটু মন্তব্য করেন।

এসবের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি খুব একটা লাইভে যাই না। মানুষ খুব বাজে কমেন্ট করে। গতকাল বাচ্চারা পাশে থাকার পরও কিছু মানুষ এমন সব মন্তব্য করেছে, যা মুখে আনা যাবে না। কিছু মানুষ এমনই। যাদের শিক্ষা নেই, জ্ঞানবুদ্ধি, বিবেক কিছুই নেই। তারা দেখল, আমার ছেলেমেয়ে পাশে, তবু তারা আমাকে বিব্রত করল।’ ফেসবুকে তাঁর পোস্ট করা ছবিগুলোতে অশ্লীল মন্তব্য করায় কমেন্ট অপশন বন্ধ করে দিয়েছেন এই অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত, স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর বর্তমানে সিঙ্গেল মাদার হিসেবেই জীবনযাপন করছেন এই অভিনেত্রী।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*