পোশাকের একদিকে নেই কাপড়, কোনোভাবে লজ্জা ঢেকেছেন নুসরাত

প্যায়ার কা পাঞ্চনামা, সোনু কে টিট্টু কি স্যুইটি মত ছবিগুলিতে খলনায়িকার ভূমিকায় অভিনয় করে নজর কেড়েছিলেন নুসরাত ভারুচা।

খলনায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেও স্টিরিওটাইপড হননি। প্রশংসায় ভরে গিয়েছিল চারিদিক। সেই নুসরত ভারুচার কাছে এখন আয়ুষ্মান খুরানা, ভিকি কৌশলের বিপরীতে অভিনয় করার প্রস্তাব ঘন ঘন এসেই চলেছে।

ড্রিমগার্ল ছবিতে নুসরাত আয়ুষ্মানের বিপরীতে অভিনয় করে মুগ্ধ করেন দর্শকমহলকে। এবং এই নুসরতই সাংঘাতিক বোল্ড পোশাকে মাথা ঘুরিয়েছিলেন সেই দর্শকদের। হাই থাই স্লিট হল এক রকমের গাউন।

এই বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত হয় বলিউডের জনপ্রিয় পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ফিল্মফেয়ার। সেখানে গাঢ় সবুজ রঙের একটি গাউন পরেছিলেন নুসরাত।

রেড কার্পেট লুক মানেই নয় শাড়ি নয়তো গাউন। নুসরত বেছে নেন গাউনের লুক। তবে তাঁর গাউনটি ছিল বেশ রিস্কি। গাউনের ডানদিকটা নেই কাপড়ের এক টুকরো।

কেবল দু’টি বেল্টের স্ট্র্যাপ দিয়ে আটকানো গাউন। যা দেখে ঢোক গেলা অসম্ভব হয়ে উঠেছিল ভক্তদের। বেশ তর্ক বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন অভিনেত্রী।

তাঁর এই লুক হলিউডে অত্যন্ত সাধারণ ব্যাপার। তবে বলিউডে খানিক অকওয়ার্ড। প্রথম সারির অভিনেত্রীরাও এমন পোশাক পরতে গেলে চট করে ভাবেন।

তবে নুসরত নিজের সাহসিকতা এবং আত্মবিশ্বাসের পরিচয় দিয়েছেন এই গাউনটি এলিগেন্সের সহিত ক্যআরি করে। রীতিমত রেড কার্পেটে নজর কেড়েছিল তাঁর এই পোশাক।

পোশাক নিয়ে এর আগেও বিপাকে পরতে হয় তাঁকে। সোনু কে টিট্টু কি স্যুইটি ছবির ছোটে ছোটে পেগ মার, গানটিতে নুসরতকে লাল রঙের হট পোশাকে দেখা গিয়েছিল।

লাল রঙের বিকিনি টপ এবং হাই থাই স্লিটেড স্কার্ট পরে যেন গ্ল্যামার চুঁইয়ে পড়ছিল নুসারতের। সেই গানের পোশাক নিয়ে ভ্রু কুঁচকে গিয়েছিল নুসরতের বাবার। সরাসরি প্রশ্ন করে বসেছিলেন নুসরত কি কেবল অন্তর্বাস পরে আছেন।

নুসরত গানটির বিষয় বাড়িতে কিছুই বলেননি। কারণ তিনি জানতেন প্রতিক্রিয়া তেমন ভাল আসবে না। গানটি দেখার পর তাঁর বাবা তাঁকে প্রশ্ন করেন, “তুমি কি ব্রা (অন্তর্বাস) পরে আছো?”

এর জবাবে নুসরত বলেন, “বাবা, ব্রা এবং ব্রালেটের মধ্যে একটা পার্থক্য আছে। যেটা আমি পরে আছি, সেটাকে ব্রালেট বলে।” বাবার এই প্রশ্নের উত্তর স্মার্টলি দিলেও মনে মনে বেশ ভয়ই ছিল নুসরত। যার কারণে তিনি বাড়িতে গানটির বিষয় আগে কিছু জানাননি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*