৯৬ কেজি থেকে যেভাবে নিজেকে বদলে ফেলেন সারা

বলিউড অভিনেতা-অভিনেত্রীদের পাশাপাশি স্টারকিডদের নিয়েও নেটিজেনদের প্রবল আগ্রহ রয়েছে। কখন কোন খুনসুটিতে তারা মেতে রয়েছেন সেখান থেকে যেন চোখ সরে না পাপরাৎজির।

যদিও ‘গার্ল টু দ্য নেক্সট ডোর’-এর ইমেজ ঝেড়ে তিনি এখন ‘হট সেনসেশন’। একের পর এক ছবি দিয়ে রাতারাতি নেটদুনিয়ার হট সেনসেশন হয়ে উঠেছেন পতৌদির নাতনি সারা আলি খান।

ওজন ছিল ৯৬ কেজি। সেখান থেকে আজ বলিউডের হট অ্যান্ড বিউটিফুল তকমা। কীভাবে সম্ভব হয়েছিল। জেনে নিন বিশদে।

বাবা, দাদুর পরিচয়ে নয়, সম্পূর্ণ নিজের দক্ষতায় নিজের আসন পাকিয়ে নিয়েছেন নবাবকন্যা। কেদারনাথ ছবি দিয়ে বলিউডে পা রেখে একের পর এক ছবিতে বাজিমাত করেছেন সারা।

প্রায় ২ বছর আগে কফি উইথ করণ-এ এসে নিজের ওজন নিয়ে খোলসা করেছিলেন অভিনেত্রী। ওজন প্রায় ৯৬ কেজি। ছোটবেলা থেকেই ওজন বেড়ে গিয়েছিল সারার।

পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিন্ড্রোম মহিলাদের জন্য হরমোনজনিত সমস্যা দেখা যায়। হরমোনের কারণেই মেয়েদের মধ্যে এই রোগটি দেখা যায়।

সারা যখন শো-এ এসে নিজের অসুস্থতা নিয়ে মুখ খুলেছিলেন তখনই তার বাবা সইফ জানিয়েছিলেন তিনি নাকি পিৎজা বেশি খেয়েছিলেন বলেই তার ওজন এত বেড়ে গিয়েছে।

যদিও সারাও স্বীকার করেছিলেন যে অতিরিক্ত পিৎজা তিনি খেয়েছিলেন। তারপরই যখন তিনি মোটা হতে থাকেন ধীরে ধীরে পিৎজা খাওয়া ছেড়ে দেন।

ফ্যাটের পাশাপাশি ফিট থাকার জন্য নিয়মিত শরীরচর্চা করাও শুরু করেছিলেন সারা। শুধু ডায়েটই নয়, নিয়মিত ওয়ার্কআউটও করেন তিনি।

ওয়ার্কআউট ডায়েটের পাশাপাশি কত্থক নৃত্যের দিকেও মনোনিবেশ করেছিলেন তিনি। সারা একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, ওজন কমাতে দুধ, চিনি, কার্বোহাইড্রেট বন্ধ করে দিয়েছিলেন তিনি।

সারা আরও জানিয়েছেন, যখনই তিনি শুটিংয়ে আসেন তখনই হলুদ, গরম জল পান করেন। ব্রেকফাস্ট ,লাঞ্চ ও ডিনারে ডিম ও চিকেন খেতেই বেশি পছন্দ করেন।

সকালে ঘুম থেকে উঠেই ওয়ার্কআউট মাস্ট সারার। ওয়ার্কআউটের পরেই দই, প্রোটিন ও কফি থাকে সারার ডায়েটে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*