কঙ্গনার সঙ্গে পরকীয়ায় মত্ত অজয়, বাড়ি ছাড়ার হুমকি কাজলের

২৫ বছর আগে দুজনের সাক্ষাৎ হয়েছিল হালচাল ছবির সেটে। তারপরেই ধীরে ধীরে আলাপ হয়, বাড়তে থাকে বন্ধুত্ব। আর তারপরই মন বিনিময় হয়েছিল দুজনের মধ্যে।

আর সেই সময়ে দুজনেরই একে অন্যের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন। এভাবেই চলতে থাকেন কাজল-অজয়। ৪ বছর পরেই বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন দুজনে। কাজলের পরিবারের আপত্তি থাকা সত্ত্বেও কাজল অনড় থাকায় বাধ্য হয়েই মেনে নেন কাজলের পরিবার।

তারপরই ১৯৯৯ সালে পরিবারের লোকজনের সম্মতিতে ঘরোয়াভাবেই বিয়ে সারেন দুজনে। তারপর কেটে গিয়েছে দীর্ঘ ২১ বছর। মাঝে এসেছে দুই সন্তান। তাদের সংসার, সম্পর্ক সবকিছুই যেন অটুট।

বলিউডে আসার পর কেরিয়ার যখন মধ্যগগণে তখনই অজয়কে বিয়ে করেন কাজল। পেজ থ্রির লাইমলাইটে তার নাম উঠে আসলেও তিনি মন দিয়েছিলেন সংসারে।

কেরিয়ার সামনে ভাল গৃহিনীর তকমাও রয়েছে কাজলের কিন্তু এরই মধ্যে অজয়ের সংসার ছাড়তে চেয়েছিলেন অভিনেত্রী। কিন্তু কেন? নিজেদের বিবাহবার্ষিকীর দিনই ভাইরাল হয়েছে অজয়ের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের কথা। যা শুনে রীতিমতো সবাই স্তম্ভিত।

সূত্র থেকে জানা গেছে, ওয়ান্স আপন এ টাইম ইন মুম্বই-এর শ্যুটিং চলাকালীন নাকি কঙ্গনা রানাউতের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয় অজয়ের। এমনকী শ্যুটিং ফ্লোরেও তাদের সম্পর্ক নিয়ে জোর গুঞ্জন দানা বাঁধে। এমনকী রাস্কেল ছবিতেও কঙ্গনাকে নেওয়ার জন্য পরিচালকদের জোর করে অজয়। সেই তখনই দুজনের সম্পর্কের কথা জানাজানি হয়ে যায়।

ব্যস সেই কথা জানতে পেরেই রেগে আগুন হয়ে যায় কাজল। কঙ্গনার সঙ্গে সম্পর্ক না ভাঙলে তিনি যে ছেলেদের নিয়ে বেরিয়ে যাবেন তাও স্পষ্ট জানিয়ে দেন কাজল। তারপরই তড়িঘড়ি করে কাজলের কাছেই ফিরে আসেন কাজল।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*