পাঁচ সন্তান ও স্ত্রীকে রেখে দ্বিতীয় বিয়ে করলেন আফগান অধিনায়ক

ব্যক্তিগত জীবনের দ্বিতীয় অধ্যায় শুরু করতে চলেছেন আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের অধিনায়ক আসগর আফগান। কাবুলের এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান খুব শিগগিরই দ্বিতীয় বিয়ে করতে চলেছেন। এরই মধ্যে তার দ্বিতীয় বিয়ের বাগদান হয়ে গেছে।

আনুষ্ঠানিকভাবে এ বিষয়ে কিছু জানাননি আফগান অধিনায়ক। তবে আফগানিস্তানের সংবাদমাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়েছে এ খবর। এছাড়া আফগান ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক মিডিয়া ম্যানেজার ইব্রাহিম মোমাদঁও এ খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মোমাদঁ লিখেছেন, ‘আফগানিস্তান জাতীয় দলের অধিনায়ক আসগর আফগান দ্বিতীয় বিয়ের জন্য বাগদান সেরেছেন। তার প্রথম স্ত্রীর সংসারে এক ছেলেসহ পাঁচ সন্তান রয়েছে। জীবনের দ্বিতীয় ইনিংসের জন্য শুভকামনা অধিনায়ক।’

প্রথম সংসারে পাঁচ সন্তান (এক ছেলে ও চার মেয়ে) রয়েছে আসগরের। তবু কেন দ্বিতীয় বিয়ে করছেন কিংবা প্রথম স্ত্রীকে তালাক দিয়েছেন কি না- এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যায়নি।

আফগানিস্তান ক্রিকেটে বৈচিত্র্যপূর্ণ এক চরিত্র আসগর আফগান। ২০০৯ সালে জাতীয় দলের হয়ে অভিষেকের পর থেকে এখনও পর্যন্ত ৪ টেস্টে ২৪৯ রান, ১১১ ওয়ানডেতে ২৩৫৬ রান ও ৬৯ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ১২৪৮ রান করেছেন ডানহাতি এ টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান।

তার অধিনায়কত্ব ক্যারিয়ার আরও বেশি চমকপ্রদ। ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে মোহাম্মদ নবীর পরিবর্তে আসগর আফগানকে অধিনায়কত্ব দেয় আফগান ক্রিকেট বোর্ড। তার অধীনে ৫৬ ওয়ানডের মধ্যে ৩১টিতেই জিতেছে আফগানিস্তান।

তবু ২০১৯ সালের বিশ্বকাপের মাত্র দুই মাস আগে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয় আসগরকে। তার বদলে দায়িত্ব দেয়া হয় গুলবদিন নাইবকে। বিশ্বকাপে ভরাডুবি হয় আফগানিস্তানের, হেরে যায় সবকয়টি ম্যাচ। বিশ্বকাপের পর তিন ফরম্যাটেই দায়িত্ব দেয়া হয় রশিদ খানকে।

কিন্তু এ সিদ্ধান্তও টেকেনি বেশিদিন। অধিনায়কত্ব হারানোর মাত্র মাস আটেকের মধ্যে আবারও তা ফিরে পান আসগর। গত বছরের ডিসেম্বরে আবারও তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক দেয়া হয় ৩২ বছর বয়সী আসগর আফগানকে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*