বিমান দুর্ঘটনায় অল্পের জন্য বেঁচে গেল ভারতীয় ক্রিকেট দল

শনিবার বিকেলে সিডনির ক্রোমার পার্কে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। সেই জায়গা থেকে কোহলিদের হোটেলের দূরত্ব মাত্র ৩০ কিলোমিটার।

আকাশ সীমার হিসেবের অনুপাতে এটা একদম মামুলি দূরত্ব। যখন ক্রোমার পার্কে লাইট প্লেনটি ভেঙে পড়ে তখন সেখানে স্থানীয় শিশুরা খেলাধুলা করছিল।

অস্ট্রেলিয়ায় পা রেখে গতকালই প্রথম অনুশীলনে নেমেছিলেন ভারতের ক্রিকেটাররা। মাঠে বিমান ভেঙে পড়ার খবর শুনে তাই শুরুতে বেশ আতঙ্কিত হয়ে পড়েন সবাই। তবে স্বস্তির খবর, বিধ্বস্ত ঐ বিমানের পাইলট বা শিশুদের খেলার মাঠে থাকা কেউই প্রাণ হারাননি।

ক্রোমার ক্রিকেট ক্লাবের সহ-সভাপতি গ্রেগ রোলিনস এ বিষয়ে বলেন, ঘটনাটা দেখে আমি চিৎকার করতে থাকি। সবাইকে বলি দৌড়াও। এরপর ওরা সবাই দৌড়াতে শুরু করে। আমার মনে হচ্ছিল, এখনই মাঠ থেকে সবাইকে বের করে দিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বিমানটি থেকে প্রচুর ধোঁয়া বের হচ্ছিল। যদি ছাউনির উপর সেটা আছড়ে পড়ত, তাহলে অন্তত ১২ জন মারা যেত। তবুও আমাদের একজন মুখে আঘাত পেয়েছে। স্বস্তির খবর, সবাই বেঁচে আছে।

জানা গেছে, বিমানটি আকাশে ওড়ার সময়ই বিকল হয়ে পড়ে এবং নিয়ন্ত্রণ হারায়। দুরত্ব কম হওয়ায় আরেকটু এদিক-সেদিক হলে বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারতেন কোহলিরাও। কারণ তাদের হোটেলে আছড়ে পড়লে বড় ধরণের ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার শঙ্কা থাকতো। ফলে সিডনির বিমান দুর্ঘটনা ক্রিকেট দুনিয়ায় বড় খবর হয়ে এসেছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*