মন ভরেনি স্ত্রীতে, অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন এই ক্রিকেটাররা

ক্রিকেটকে জেন্টালম্যান গেম বলা হয়। মাঠের মতই ব্যক্তিগত জীবনেও সমর্থকদের প্রিয় তারকারা জেন্টালম্যান লাইফ লিড করেন বলে এনেকরই দারনা।

বিশেষ করে সাংসারিক জীবনে তারা তাদের পার্টনারকে নিয়ে সুখী থাকেন বলেই মনে করা হয়। এমনটা যা ভুল তা নয়। এই সংখ্যাটাই বেশি। কিন্তু ক্রিকেট বিশ্বে এমন কিছু বিখ্যাত ক্রিকেটার রয়েছেন যারা জড়িয়েছেন বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে।

চলুন জানা যাক এমন কিছু ক্রিকেটারদের সম্পর্কে যাদের বিরুদ্ধে স্ত্রীর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে অন্য সম্পর্কে জড়ানোর অভিযোগ উঠেছিল।

মুরলি বিজয়
মুরলী বিজয় দীনেশ কার্তিকের স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন। দীনেশ কার্তিক আর মুরলী বিজয় দুজনেই ভারতীয় দলের হয়ে ক্রিকেট খেলেছেন আর তাদের সমর্থকরা তাদের প্রতিভার জন্য তাদের দুজনেরই প্রশংসা করেছেন আর পছন্দ করেছেন। যদিও আমাদের মধ্যে অনেক কম লোকই জানেন যে মুরলী বিজয়ই ছিলেন যিনি দীনেশ কার্তিকের প্রথম বিয়ে ভেঙে দেন।

দীনেশ কার্তিক আর নিকিতা ২০০৭ এ ডেটিং শুরু করেন সেই বছরই কার্তিক নিজের ছেলেবেলার বন্ধু নিকিতা বাঞ্জারাকে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত পাঁচ বছর পর সম্পর্ক খারাপ হয়ে যায় যখন নিকিতার মুরলী বিজয়ের সঙ্গে বিবাহোত্তর সম্পর্ক তৈরি হয়। যিনি তামিলনাড়ু দলে কার্তিকে সতীর্থ ছিলেন। আর সেই সেই সময় বিজয় বর্তমান ভারতীয় টেস্ট দলেরও ওপেনিং ব্যাটসম্যান ছিলেন।

২০১২য় বিজয় হাজারে ট্রফি চলাকালীন মুরলী বিজয়ের সঙ্গে নিজের স্ত্রীর সম্পর্কের কথা জানতে পারেন কার্তিক। দীনেশ কার্তিক নিজের স্ত্রীকে ডিভোর্স দেন যখন তিনি গর্ভবতী ছিলেন আর তার দ্রুত পরেই মুরলী বিজয় আর নিকিতা একে অপরকে বিয়ে করে নেন। এই দম্পতির তিনটি সন্তান রয়েছে, তারা কেউই একে অপরের সম্পর্ক বিতর্কিত বয়ান দেননি। দীনেশ কার্তিক পরে দীপিকা পাল্লিকেলকে বিয়ে করেন যিনি একজন জাতীয় স্কোয়াশ প্লেয়ার।

মোহাম্মদ আজাহরউদ্দিন
ভারতের সেরা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অন্যতম মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন। কিন্তু গড়াপেটা কাণ্ডে নাম জড়ানোর তার ক্রিকেট কেরিয়ার শেষ হয়ে যায়। তার ক্রিকেট কেরিয়ারের মতনই ব্যক্তিগত জীবনও চড়াই-উৎরাইতে ভরা। তিনি দুটি বিবাহ করেন আর দুবারই বিচ্ছেদ করেন। আজহার ১৯৮৭তে নৌরিনকে বিয়ে করেছেন, তার দুটি ছেলেও হয়। ১৯৯৬তে তিনি ডিভোর্স নেন আর অভিনেত্রী সঙ্গীতা বিজলানিকে বিয়ে করেন, যার সঙ্গে তার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় জোয়ালা গাট্টার সঙ্গে আজহারের কথিতভাবে সম্পর্ক থাকার কারণে ২০১০এ সঙ্গীতা বিজলানির সঙ্গেও তার কথিতভাবে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এসবের বাইরেও আজহারের নাম শ্যানন ম্যারির সোংগে যোগ হয় যিনি একজন আমেরিকান ছিলেন।

মোহাম্মদ শামি
মোহাম্মদ শামি ও তার স্ত্রী হাসিন জাহানের বিবাদের কথা সকলেরই জানা। হাসিন শামির উপর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়ানো ও পারিবারিক হিংস ও মারধরের অভিযোগ এনেছিলেন। শামির বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়ানোর প্রমাণ স্বরূপ সোশাল মিডিয়ায় চ্যাটের স্ক্রিন শটও প্রকাশ্যে এনেছিলেন। বর্তমানে তারা আলাদা থাকেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হাসিন জাহানেরও এর আগে আরও একটি বিয়ে হয়েছিল। সন্তানও রয়েছে। সেই সম্পর্ক তেকে বেরিয়ে এসেই শামিকে বিয়ে করেছিলেন তিনি।

বিনোদ কাম্বলি

কোনো এক সময় ভারতীয় দলের সবচেয়ে প্রতিভাবান খেলোয়াড় হিসেবে মনে করা হত বিনোদ কাম্বলিকে। কিন্তু জীবনে এত বিতর্ক যোগ হয়েছিল যে যখনই তার কথা বলা হয় তো তার কৃতিত্বের চেয়ে এই বিতর্কগুলোই সামনে এসে দাঁড়ায়। ভারতের হয়ে ১০৪টি ওয়ানডে আর ১৭টি টেস্ট ম্যাচ খেলা প্রাক্তন ক্রিকেটার বিনোদ কাম্বলির ব্যক্তিগত জীবন যথেষ্ট চর্চার বিষয় থেকেছে। কাম্বলি প্রথমে নোয়েলা লুইসকে বিয়ে করেন, কিন্তু বিয়ের পর এই দুজনের মধ্যে প্রায়ই ঝামেলা হত। এর মধ্যে কাম্বলি একজন ফ্যাশন মডেল অ্যাণ্ড্রিয়া হেউইটের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন। এটা জানার পর তার স্ত্রী কাম্বলির সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটান। এমনটা মানা হয় যে এর মধ্যে অ্যাণ্ড্রিয়া গর্ভবতী হয়ে পড়েন আর তিনি একটি সন্তানের জন্ম দেন। যদিও এর দ্রুত পরেই কাম্বলি অ্যাণ্ড্রিয়াকে বিয়ে করে নেন। তার ছেলের নাম জেসাস ক্রিস্টায়ানো রাখা হয়।

শেন ওয়ার্ন
সর্ব কালের সেরা স্পিন বোলারদের মধ্যে অন্যতম সেরা শেন ওয়ার্ন। কিন্তু ব্যাক্তিগত জীবন তার বিতর্কে ভরা। একাধিক মহিলার সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা জানা য়ায়। ১৯৯৫ সালে শেন ওয়ার্ন সিমোয়েন কলহানকে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু বিয়ের পর থেকে একাধিক মহিলার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন ওয়ার্নি। সেই কথা জানতে পারে ওয়ার্নের স্ত্রী তাকে ডিভোর্স দেন। তারপর থেকে আর বিয়ে করেননি শেন ওয়ার্ন। কিন্তু মহিলা সমক্রান্ত নানা বিতর্কে জড়িয়েছে কিংবদন্তী স্পিনারের নাম।

ক্রিস গেইল

বিতর্ক ও ক্রিস গেইল সর্বদা একে অপরের পরিপূরক। গেইলের স্ত্রী ও কন্যা রয়েছে। কিন্তু তারপরও এক নয় একাধিক মহিলার সঙ্গে গেইলকে পার্টি করতে দেখা যায়। ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা য়ায়। যা নিয়ে বিতর্কও কম হয় না। কিন্তু ইউনিভার্স বস এইসববকে থোরাই কেয়ার করেন। তিনি নিজের লাইফ নিজের মত করে বাঁচেন।

ভিভ রিচার্ডস

ওয়েস্ট উন্ডিজ তথা বিশ্ব ক্রিকেচের কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান ভিভ রিচার্ডস ও বলিউডের অভিনেত্রী নিনা গুপ্তার প্রেমের কথা সকলেরই জানা। বিয়ে না করলেও, তাদের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। ভিভ রিচার্ডস আগে থেকেই বিবাহিত ছিলেন। তার সন্তানও ছিল। তাই নিনা গুপ্তার সহ্গে সম্পর্কে জড়ালেও, পরে স্ত্রীর কাছে ফিরে যাওয়াই সঠিক মনে করেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*