ভাড়া‍য় মেলে বউ, আবার ছেড়েও দিতে পারে ইচ্ছে মত

বিয়ে করে একটা দাম্পত্য জীবন কাটানো চারটিখানি কথা নয়। একে নিজের দায়িত্ব ঠিকমতো নেওয়া যায় না তারপর আবার অন্যজনের দায়িত্ব?

তার থেকে এরকম যদি হতো সময়ে-অসময়ে বউ ভাড়া পাওয়া, যেত কি ভালোই না হত তাইনা? কি বলছেন? মোবাইল ফোন, ঘর গাড়ি ভাড়া, দেওয়া হয় শুনেছি কিন্তু তা বলে বউ ভাড়া? এ আবার কেমন কথা?

কথাটা আজগুবি মনে হলেও ,ভারতে এমন এক জায়গা আছে যেখানে বউ ভাড়া দেওয়া হয়। ঘর বাড়ি গাড়ি ইত্যাদির মতো চুক্তি সহকারে মিলে অন্যের বউ। এ ভারী অবাক কান্ড তো।

ঘটনাটি প্রাথমিকভাবে আজগুবি মনে হলেও এমন বিরল ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের শিবপুরি গ্রামে। সেখানে চুক্তি সহকারে মেলে বউ। সেই গ্রামের কাছে এটা কোন ব্যাপার নয় বরং বৈধ। সরকারি চুক্তি করে ভাড়া করে পাওয়া যায় বউ। তাই সে গ্রামবাসীরা পুরুষেরা বিয়ে করে সংসার জীবন বাঁধনের যুক্ত না হয়। মাঝে সাঝে ই করে ফেলে একটা দুটো বউ ভাড়া ।

অবশ্য এই বিরল বিষয়টি তাদের কাছে খুবই স্বাভাবিক ,এমনকি আপত্তি নেই ঐ গ্রামের মহিলাদের । সরকারি চুক্তি তে দুপক্ষই স্বাক্ষর করে কাজটি সম্পন্ন করা হয়। এই কথাটা নিয়ম “ধাদিচা”।

উত্তরপ্রদেশের এই ঘটনা সামনে আশাতে ইতিমধ্যে অনেকের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে কৌতুহল । অনেকে ভাবছে তাহলে একদিন ঘুরে আসা যায় নাকি প্রদেশের শিবপুর গ্রাম থেকে?

এরপর চুক্তি কার্যকর হয়। বউ নিয়ে আমরা অনেক সময় অনেক শিরোনাম পড়ে থাকি।এবারের শিরোনামটাও এর ব্যতিক্রম নয়। অবাক হলেও সত্যি বউ ভাড়া দেয়া হয় ভারতের একটি প্রদেশে।বিয়ে করা তাদের কাছে বেশ ঝামেলা! কোনো নারীকে বিয়ে করে স্থায়ীভাবে দায়বদ্ধ হতে চায় না। তাই বউ ভাড়া করে দাম্পত্য জীবন কা’টান গ্রামের পুরুষরা। সুত্র: ডেইলিহান্ট

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*