সঞ্জয়ের স্ত্রীর মর্যাদা পেতে নিজেকে যৌনকর্মীর সঙ্গেও তুলনা করেন মান্যতা

চিরকালই বি-গ্রেড স্টার হিসেবে পরিচিত ছিলেন মান্যতা দত্ত। সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে বিয়ের পর, সঞ্জুর স্ত্রী হিসেবে নতুন পরিচয় লাভ করেছিলেন মান্যতা। মান্যতা বি-গ্রেড তারকা।

এদিকে নার্গিস এবং সুনীল দত্তের ছেলে। দুজনেরই বলিউডে জনপ্রিয়তার অন্ত নেই। সঞ্জয়ের প্রথম স্ত্রী রিয়া পিল্লাইও ছিলেন নামী পরিবারের মেয়ে। সেখানে মান্যতার ক্লাস একেবারেই সঞ্জয়ের সঙ্গে মানানসই নয়।

এই বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি সঞ্জয়ের দুই বোন নম্রতা এবং প্রিয়া। মান্যতার এক সময়ের বিস্ফোরক সাক্ষাতকারে এমনটাই জানা যায় যে তাঁরা মান্যতাকে এতটাই অপছন্দ করতেন যে জনসমক্ষে বহুবার মান্যতাকে অপমান করেছেন।

এগারো বছর আগে এক সাক্ষাতকারে মান্যতা এমন বিভিন্ন দাবি করেন যেখানে তিনি সঞ্জয়ের দুই বোনকে দোষারোপ করেছেন।

আজ হয়তো নম্রতা এবং প্রিয়াকে, মান্যতার সঙ্গে ছবি তুলতে দেখা যায়। তবে এমন অবস্থা প্রথমদিকে ছিল না। মান্যতাকে বিয়ের পর পরই অপদস্ত করত তাঁরা বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

তিনি বলেন, “আমার স্বামীর জীবনের প্রতি কিছু অন্তত অধিকার আছে। একজন যৌনকর্মী হোক বা রাজকুমারী অথবা একজন স্ত্রী, প্রত্যেকেরই একটা আলাদা অধিকার থাকে।”

এই মন্তব্য শোরগোল ফেলে দিয়েছিল বিনোদন জগতে। যৌনকর্মীর সঙ্গে নিজের তুলনা করেছিলেন মান্যতা। বোনেরা নাকি তাঁকে এ বলেও দোষারোপ করেছিল যে, সঞ্জয়ের জীবনে নাকি অধিকার জমাতে এসেছেন মান্যতা।

যদিও এই তিক্ততা কাটতে লেগেছে বহু বছর। এখন তাঁদের মধ্যে সবকিছু স্বাভাবিক। তবুও মান্যতা নিজের মন থেকে সেই অপমান আজও মুছে ফেলতে পারেননি।

জনসমক্ষে, বহু পার্টিতে, ঘরোয়া অনুষ্ঠানে মান্যতাকে অবমাননা করেছেন প্রিয়া এবং নম্রতা। তাঁদের কথার কোনও পাল্টা জবাব না দিয়ে সঞ্জুর পাশে সুখ-দুঃখে সর্বক্ষণ পাশে ছিলেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*