যেসব দেশে না’রীসঙ্গ ‘ডাল-ভাত’!

বিশ্বের অনেক দেশের অর্থনীতির মূল ভিত্তি হচ্ছে পর্যটন। আর এই ব্যবসাকে এগিয়ে নিতে নিত্য যোগ হয় নতুন নতুন সেবা। পর্যটক টানতে কোনো দেশ সাগরের নিচে হোটেল বানাচ্ছে, কোনো দেশ যৌ’নতাকে পুঁজি করে পর্যটন শিল্পকে ফুলিয়ে ফাঁ’পিয়ে তুলছে।

তবে বিশ্বের অনেক দেশ এখন সৃষ্টির আদিম নে’শা ‘যৌ’নতার’ ওপর ভর করে তাদের পর্যটন শিল্পকে বাড়াতে তৎপর হয়েছে। যেটাকে একটি নামও দেয়া হয়েছে, ‘সে’ক্স ট্যুরিজম’। এবার জে’নে নিন নারীর সা’ন্নিধ্য দিয়ে পর্যটক আক’র্ষণের তালিকায় প্রথম দিকে থাকা কয়েকটি দেশ ও স্থানের নাম-

দক্ষিণ কোরিয়া: দেশটিতে নারীর সা’ন্নিধ্য পেতে তেমন ক’ষ্ট ক’রতে হয়না। গুরু’ত্বপূর্ণ শহরগুলোতে রয়েছে একাধিক এসকট সার্ভিসের ব্যব’স্থা। হোটেলে কয়েক ঘণ্টার জন্য ঘর ভাড়াও পাওয়া যায় সাধ্যের মধ্যে।

কিউবা: নিস’র্গ প্রাকৃতিক লীলাভূমি কিউবা একটি দ্বীপরাষ্ট্র। প্রতি বছর এদেশে অজস্র পর্যটক পাড়ি জমান। তবে পর্যটকদের বড় একটি অংশ সেখানে যান শুধুমাত্র যৌ’নতার আক’র্ষণে। প্রাপ্তবয়’স্কের পাশাপাশি অপ্রাপ্তব’য়স্ক যৌ’নস’ঙ্গীও পাওয়া যায় সুলভ মূল্যে।

বুলগেরিয়া: যৌ’ন পর্যটনের পীঠ’স্থান বুলে’গেরিয়ার সানি বিচ রিসোর্ট। প্রতিদিন কয়েক হাজার দে’হ ব্যবসায়ী ভিড় জমান এই সৈকতে। এদের মধ্যে বেশিরভাগই প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে আসা।

থাইল্যান্ড: দ্বিতীয় বিশ্বযু’দ্ধের পর থেকেই দে’হ ব্যবসা জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে থাইল্যান্ডে। সেখানকার নাইটক্লাব গুলোর নামকরণ করা হয়েছে নারীদে’হের বিভিন্ন স্প’র্শকাতর অ’ঙ্গসমূহের নামে। ফলে বিদেশি পর্যটকরা আগের চেয়ে বেশি আকৃ’ষ্ট হচ্ছে যৌ’নতায়।

রাশিয়া: এক দশক ধ’রেই রাশিয়ায় দে’হ ব্যবসার রমরমা বাণিজ্য চলছে। উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপের অনেক পর্যটক রাশিয়ায় আসে শুধু যৌ’নতার টানে। তবে রাশিয়ার যৌ’ন বাজারে দা’লালদের দা’পট অনেক বেশি।

লাস ভেগাস: আমেরিকার এই শহর ‘সব পেয়েছি’র ঠিকানা। কী নেই এখানে! শহরে যৌ’নতার র’মরমা স’ম্পর্কে ই’ঙ্গিত ক’রতে বলা হয়, ‘হোয়াট হ্য়াপেনস ইন ভোস, রিমেইনস ইন ভেগাস।’ এখানে যৌ’নতা শুধু ব্যবসা অথবা বিনোদন নয়, শরী’রী ভাষা উদ’যাপনের মাধ্যম।

নেপাল: রাজধানী কাঠমুন্ডু এবং পোখরা ও তরাইয়ের শহরা’ঞ্চলে দে’হ ব্যবসার রমরমা অব’স্থা। দামী হোটেল থেকে শুরু করে কমদামী হোটেলেও ব্যবসা জমে উঠে। ব্যাঙের ছাতার মত ছ’ড়িয়ে পড়া ম্যাসাজ পার্লার গুলোতে যেন অ’বৈ’ধ দে’হ ব্যবসার পসারায় সাজানো।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*