সৃজিতকে দুলাভাই ডাকেন না মিথিলার বোন


পুরো নাম ইফফাত রশীদ মিশৌরি। তিনি মডেল ও অ’ভিনেত্রী রাফিয়াথ রশীদ মিথিলার ছোট বোন। এরপর বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনেও দেখা গিয়েছে মিশৌরিকে।

শুধু তাই নয়, একটি নাট’কেও অ’ভিনয় করেছিলেন তিনি, তবে সেটি ছোটবেলার চরিত্রে। এরপর আর তাকে অ’ভিনয়ে খুব একটা দেখা যায় নি।

নতুন খবর হলো, এখন অ’ভিনয়ে নিয়মিত হচ্ছেন মিশৌরি। আজ গিয়াস উদ্দিন সেলিমের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘শিরোনামহীন’-এর শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন তিনি। এখানে কেন্দ্রীয় একটি চরিত্রে অ’ভিনয় করছেন।

অ’ভিনয়ে নিয়মিত হওয়া প্রসঙ্গে মিশৌরী বলেন, ‘বেশকিছু মোবাইল অ’পারেটরসহ অনেক পণ্যের বিজ্ঞাপনে কাজ করা হয়েছে। এরপর একটু বিরতি দিয়েছিলাম। নাট’কে তেমন অ’ভিনয় করা হয় নি, একটি নাট’কে অ’ভিনয় করেছিলাম। এখন থেকে নাট’কে নিয়মিত কাজ করবো। শুরুটা পারিবারিকভাবে হলেও এখন নিজের ইচ্ছাতেই অ’ভিনয় করছি।’

বড় বোন মিথিলা প্রসঙ্গে মিশৌরী বলেন, মিথিলা আপুর সাথে সবসময় কথা হয়। আমা’র কাজ দেখার পর যদি কোনো পরাম’র্শ থাকে তবে আমাকে বলে- এটা করা যেত বা এমন হতে পারত। আমা’র দ্বিধা থাকলে আমিও মিথিলা আপুর সঙ্গে শেয়ার করি।কলকাতার স্বনামধন্য পরিচালক দুলাভাই সৃজিত মুখার্জির স’ম্পর্কে মিথিলার ছোট বোন বলেন, আসলে আমি ওকে ‘সৃজিত’ বলেই ডাকি (হাসি)। দাদা, ভাই কিংবা দুলাভাই কিছুই বলে না!

মিশৌরী আরও বলেন, ও সবসময় মজার ঘটনা বলে। ও আমা’র জন্য ছে’লে খুঁজছে। আমাকে বিয়ে দেবে। আমা’র বিয়েটা নাকি ওই দেবে। এই বিয়ে নিয়েই আমাদের মাঝে খু’নসুটি চলতে থাকে।অ’ভিনয়ের বাইরেও নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরীর সহকারী হিসেবে বেশ কিছুদিন কাজ করেছেন মিশৌরি। শিখেছেন নির্মাণের নানা খুঁটিনাটি বিষয়। সুযোগ পেলে সামনে নির্মাণে আসতে চান বলে জানান এই মডেল ও অ’ভিনেত্রী।

মিশৌরি রশিদ বর্তমানে রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন নিয়ে পড়াশোনা করছেন। আর এক সেমিস্টার পরই তার গ্রাজুয়েশন শেষ হচ্ছে।

শুধু তাই নয়, একটি নাট’কেও অ’ভিনয় করেছিলেন তিনি, তবে সেটি ছোটবেলার চরিত্রে। এরপর আর তাকে অ’ভিনয়ে খুব একটা দেখা যায় নি।

নতুন খবর হলো, এখন অ’ভিনয়ে নিয়মিত হচ্ছেন মিশৌরি। গিয়াস উদ্দিন সেলিমের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘শিরোনামহীন’-এর শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন তিনি। এখানে কেন্দ্রীয় একটি চরিত্রে অ’ভিনয় করছেন।

অ’ভিনয়ে নিয়মিত হওয়া প্রসঙ্গে মিশৌরী বলেন, ‘বেশকিছু মোবাইল অ’পারেটরসহ অনেক পণ্যের বিজ্ঞাপনে কাজ করা হয়েছে। এরপর একটু বিরতি দিয়েছিলাম। নাট’কে তেমন অ’ভিনয় করা হয় নি, একটি নাট’কে অ’ভিনয় করেছিলাম। এখন থেকে নাট’কে নিয়মিত কাজ করবো। শুরুটা পারিবারিকভাবে হলেও এখন নিজের ইচ্ছাতেই অ’ভিনয় করছি।’

বড় বোন মিথিলা প্রসঙ্গে মিশৌরী বলেন, মিথিলা আপুর সাথে সবসময় কথা হয়। আমা’র কাজ দেখার পর যদি কোনো পরাম’র্শ থাকে তবে আমাকে বলে- এটা করা যেত বা এমন হতে পারত। আমা’র দ্বিধা থাকলে আমিও মিথিলা আপুর সঙ্গে শেয়ার করি।কলকাতার স্বনামধন্য পরিচালক দুলাভাই সৃজিত মুখার্জির স’ম্পর্কে মিথিলার ছোট বোন বলেন, আসলে আমি ওকে ‘সৃজিত’ বলেই ডাকি (হাসি)। দাদা, ভাই কিংবা দুলাভাই কিছুই বলে না!

মিশৌরী আরও বলেন, ও সবসময় মজার ঘটনা বলে। ও আমা’র জন্য ছে’লে খুঁজছে। আমাকে বিয়ে দেবে। আমা’র বিয়েটা নাকি ওই দেবে। এই বিয়ে নিয়েই আমাদের মাঝে খু’নসুটি চলতে থাকে।অ’ভিনয়ের বাইরেও নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরীর সহকারী হিসেবে বেশ কিছুদিন কাজ করেছেন মিশৌরি। শিখেছেন নির্মাণের নানা খুঁটিনাটি বিষয়। সুযোগ পেলে সামনে নির্মাণে আসতে চান বলে জানান এই মডেল ও অ’ভিনেত্রী।

মিশৌরি রশিদ বর্তমানে রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন নিয়ে পড়াশোনা করছেন। আর এক সেমিস্টার পরই তার গ্রাজুয়েশন শেষ হচ্ছে।


Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*