স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া যুবকের, খাটের নিচে লাশ লুকিয়ে রাখা হয় ৩ দিন


পিন্টুর সন্দেহ ছিল তার স্ত্রীর সাথে পরকিয়ার সম্পর্ক ছিল স্বর্ণ কারিগর মাধব দেবনাথের। এই সন্দেহ থেকে তাকে তিন দিন আগে বাসায় ডেকে নিয়ে গিয়েছিল পিন্টু।

এরপর মাধবকে হত্যা করে তার বাসার খাটের নিচে ঢুকিয়ে রেখেছিল সে। তিন দিন পর লাশ পঁচে দূর্গন্ধ বের হলে পুলিশকে জানায় স্থানীয় লোকজন।

এরপর পুলিশ এসে মাধবের লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনা ঘটেছে চট্টগ্রামের কোতোয়ালী থানার টেরিবাজারের আফিম গলিতে।

শনিবার (৫ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে আফিমের গলির একটি ভবন থেকে ওই মাধব দেবনাথের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ঘাতক পিন্টুসহ ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

হত্যার শিকার মাধব দেবনাথ কুমিল্লা জেলার ভাঙ্গার বাজার থানার খাটাস গ্রামের হরিপদ দেবের সন্তান। মাধব হাজারি গলির একটি স্বর্ণের দোকানের কারিগর ছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন বলেন, ‘নিহত যুবক মাধব দেবনাথের সঙ্গে নিজের স্ত্রীর পরকিয়া ছিল বলে সন্দেহ করছিল পিন্টু। এই সন্দেহ থেকে তাকে বাসায় ডেকে এনে খুন করে। পরে তার লাশ ফেলে রাখা হয় ওই বাসার খাটের নিচে।’

তিনি আরও বলেন, ‘লাশের দুর্গন্ধ বের হওয়ায় পর এলাকার লোকজন থানায় খবর দেয়। পুলিশ সেখান থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় রাতে পিন্টুর বাসায় অভিযান চালিয়ে তার মা, বাবা, স্ত্রী ও দুই ভাইসহ মোট ৬ জন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। যাচাইবাছাই শেষে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হবে।


Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*