মেয়েটিকে ধুমপান করতে দেখে ঝাঁপিয়ে পড়ল স্থানীয়রা (ভিডিও)


এক উদ্যানে বসে আড্ডা দিচ্ছে আর ধুমপান করছে তরুণ-তরুণী। এ সময় তাদের লক্ষ্য করে এগিয়ে আসে শার্ট-প্যান্ট আর মাথায় টুপি পরা এক ব্যক্তি।

তার পিছু নেয় আরও কয়েকজন। শুরু থেকেই মোবাইল ক্যামেরায় ভিডিও ধারণ করা হচ্ছিল। দ্রুতই আরও অনেক মানুষ জড়ো হয়।

অতঃপর সেই তরুণ-তরুণীকে উদ্দেশ করে টুপিওয়ালা সেই ব্যক্তির নেতৃত্বে শুরু হয় গালিগালাজ। প্রকাশ্যে ধুমপান করা তাদের কাছে সমস্যা নয়, সমস্যা হলো একজন মেয়ে ধুমপান করছে!

এমনই এক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। গতকাল রোববার থেকে ভিডিওটি ফেসবুকে ঘুরে বেড়াচ্ছে। রাজশাহীর সিএনবি মোড়ে অবস্থিত সার্কিট হাউজ এলাকার পার্কের ঘটনা এটি। প্রতিদিনই বহু মানুষ ওই পার্কে বেড়াতে যান। কেউ হাটাহাটি করেন। সেখানে আছে ভ্রাম্যমান চা-নাস্তার দোকান। বেচা-বিক্রি হয় সিগারেট, পান ইত্যাদি।

ভিডিওতে আরও দেখা যায়, ওই টুপিওয়ালা ব্যক্তি শুরু থেকেই তরুণীকে গালাগাল দিয়ে উদ্যান থেকে বেরিয়ে যেতে বলছিলেন। তার সঙ্গে অনেকেই তরুণী কেন ধুমপান করবে, প্রতিবাদ করছিলেন।

তরুণীকে প্রতিবাদ করতে দেখে তার রাগ আরও চড়ে যায়। তা ছাড়া পাশের লোকজনগুলো তাকে সমর্থন করে যাচ্ছিল। ভিডিও করতে দেখে ওই তরুণী ভাষ্য ছিল, ভিডিও করবেন? করেন। যা করতে পারেন করেন। আমি অপরাধ করছি না। এটা পাবলিক প্লেস। আপনি গলাবাজি করতে পারেন না। গলা উচু করে কথা বলতে পারেন না।

এ সময় ওই লোকটি অকথ্য ভাষায় কিছু শব্দ উচ্চারণ করেন। তার ভাষ্য ছিল, মেয়ে মানুষ পাবলিক প্লেসে বসে সিগারেট খাচ্ছেন, বাসায় কি এসব শিখিয়েছে। বিবেক নেই আপনাদের। আমাদের বিবেক আছে। তোরা বের হ এদিক থেকে। এভাবে দুপক্ষের তর্ক চলাকালীন কেউ একজন পেছন থেকে টুপি পরিহিত ব্যক্তিকে উদ্দেশ করে বলেন, এই আপনি কে? চুপ থাকেন। আপনি সিগারেট খাওয়া বন্ধ করতে বলতে পারেন না। আপনার সেই অধিকার নাই।

টুপি পরা ওই ব্যক্তি ফের কথা বলতে শুরু বরেন। তার ভাষ্য, আজকাল এই যে ধর্ষণ হচ্ছে, রাস্তাঘাটে মেয়েদের অপমান হচ্ছে, গায়ে হাত দিচ্ছে, এ সব কারণেই। আপনাদের মতো মেয়েদের কারণেই এমন হচ্ছে।

এ সময় কালো টি শার্ট পরিহিত ওই তরুণ তার সঙ্গীকে নিয়ে উদ্যান থেকে চলে যেতে ওঠেন। এ সময় লাল সোয়েটার পরিহিত এক ভদ্রলোক তাদের কাছে এসে চলে যেতে বলেন। তার ভাষ্য ছিল, মেয়েরা সিগারেট খাক বা নেশা করুক, গোপনে করে। প্রকাশ্যে করে না। আপনি এখান থেকে চলে যান। নাহলে আপনাকে সবাই খারাপ ভাবছে। ওই তরুণ-তরুণী চলে যেতে শুরু করলে ওই ব্যক্তিই আবার পেছন থেকে বলেন, ‘আপনার মতো মেয়েদের কারণেই আমাদের সমাজের মেয়েরা খারাপ হচ্ছে।’

ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য পাওয়া যায়। অনেকে মনে করেন, ধুমপান করা কোনো অবস্থাতেই ঠিক নয়, কিন্তু এভাবে ধুমপানের জন্য কোনো নারী বা পুরুষকে হেয় করার সুযোগ নেই। আর ভিডিও করা আরও মারাত্মক অপরাধ।

ব্লগার নিঝুম মজুমদার লিখেছেন, ‘যেই মেয়েটা ধূমপান করছিলেন তাকে আমার যথেষ্ঠ সাহসী মনে হয়েছে। এত এত ঘিরে ধরা কাপুরুষ দেখেও মেয়েটা সাহস নিয়ে কথা বলেছে দেখে আমার ভালো লেগেছে।…মেয়েটা চলে আসা প্রথাতে একটা সজোরে লাথি মেরেছে দেখে আনন্দে মনটা ভরে গেলো। জয়টা মেয়েটার-ই হয়েছে।’

আরেকজন লেখেন, ‘সিগারেট শুধু নারীদের জন্য ক্ষতিকারক আর পুরুষদের জন্য ভালো- এটা তো জানতাম না!’

কেউ মনে করছেন, তরুণীকে ধুমপান করতে দেখে যাচ্ছেতাই ভাষায় গালাগাল করে, ভিডিও করে সোশ্যাল সাইটে ছড়িয়ে দেওয়া চরম অসভত্যারই নামান্তর।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন…


Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*